১৫ বছর বয়সী সুমাইয়া অপহরন ।

১৯ মে ২০২৪ সন্ধায় আমাদের অফিসিয়াল ওয়াটসাপে একজন ভুক্তভোগী ম্যাসেজ করে জানান যে, উনার বোনের মেয়েকে এলাকার একটি ২২ বছরের বখাটে ছেলে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

– অপহরণ হওয়া সুমাইয়া নামের মেয়ে নবিগঞ্জ এর বাসিন্দা বয়স ১৫। অপ্রাপ্ত বয়স্ক এই কিশোরিকে প্রেমের প্রস্তাবে বিয়ে করতে চায় বলে প্রতিনিয়ত ইভটিজিং করতো অভিযুক্ত নুর মিয়ার ছেলের ইমন আহমেদ ( ২২). ।
– অভিযোগকারীর দেওয়া তথ্য মতে, ছেলেটি ছিল অনেক বখাটে জুয়া খেলা মাদকসেবন আরো বিভিন্ন খারাপ কাজে জড়িত ছিল। মেয়েটিকে প্রেমের প্রস্থাব দেয় ও বিয়ে করতে চায় বলে মেয়েটিকে ইভটিজিং করে।
– তার স্বভাব চরিত্র মেয়ের পরিবারের সবাই জানতে পারে তাই মেয়ে ও তার পরিবার ছেলের পরিবারকে ও ছেলেকে জানায় তারা রাজিনা।
– পাশাপাশি ছেলের পরিবারকে তারা এটা জানান যে মেয়েটির বয়স হয় নাই সে এখনো লেখাপড়া করতেছে।
– গতকাল ১৯ মে ২০২৪ বিকেলের দিকে মেয়েটিকে অপহরণ করে ছেলে।
– আমাদের কাছে যিনি অভিযোগ নিয়ে আসেন তিনি ছিলেন ভুক্তভোগীর খালা উনার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আমরা পুরো ব্যাপারটি আমলে নিয়ে ছেলের ও তার পরিবারের নাম্বার এর লোকেশন বের করি।
সেই সুত্র ধরে অপহরণকারী ইমন আহমেদ ( ২২) এর একটিভ লোকেশন জানতে পারি। এবং ভুক্তভোগীর পরিবারকে আমরা সেই অনুযায়ী দিক নির্দেশনা দিলে তৎক্ষণাৎ উক্ত লোকেশনে গিয়ে জানতে পারেন যে, এইখানে ছেলের খালার বাড়ি।
– সেখানে রাতে গিয়ে না পেলে এবং অভিযুক্ত ছেলের খালা এই ব্যাপারে অস্বীকার করেন যে মেয়েটি বা ছেলেটি তাদের কাছে নেই।

– পরের দিন অর্থাৎ আজ ২০ মে ২০২৪ সকালে একই লোকেশন থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে পরিবার। মেয়েটি নিরাপদ ও সুস্থ আছে। আমাদের পরামর্শ অনুযায়ী ভুক্তভোগী আইনি ব্যাবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন।